Welcome to Zero to Infinity Q&A. To ask questions or answer any question please Register first. Thank You.

বায়ুমণ্ডল না থাকলে দিবসের পরিমাণে কি কোনরূপ তারতম্য হত ?

4 like 0 dislike
489 views
asked Jun 15, 2015 in Astronomy by **কৌতুহলী** (1,573 points)
0% Accept Rate

দিবসের পরিমাণের(গড়ে ১২ঘণ্টা, ভোর থেকে সন্ধ্যা) সাথে বায়ুমণ্ডলের উপস্থিতির কোন সম্পর্ক আছে কি ?

বায়ুমণ্ডল না থাকলে দিবসের পরিমাণ কি হ্রাস পেত / বৃদ্ধি পেত / একই থাকত ?

সম্পূর্ণ লজিকাল ব্যাখা চাই...

 

Share at -

1 Answer

4 like 0 dislike
answered Jun 17, 2015 by সপ্নবাজ (471 points)
edited Jun 20, 2015 by সপ্নবাজ
পৃথিবীর আহ্নিক গতির কোন পরিবর্তন হবে না।কিন্তু বায়ুমন্ডল না থাকায় আমরা প্রায় দুই মিনিট পর সূর্যালোক দেখতে পাব(যদি নিরক্ষরেখায় অবস্থান করি)।এর কারন হল "Atmospheric Refraction"[১]।এটা একটু ব্যাখ্যাকরি- বায়ুমন্ডলের কারনে সূর্য দিগন্তরেখা বরাবর আসার আগেই আমরা সূর্যালোক দেখতে পাই।সেটা প্রায় দুই মিনিট আগে।আবার সূর্য দিগন্তরেখা অতিক্রম করার(সূর্যাস্ত) ২ মিনিট পর পর্যন্ত আমরা সূর্যালোক দেখতে পাই।এটাকে "Atmospheric Refraction" বলা হয়।
যদি বায়ুমন্ডল না থাকে তাহলে Atmospheric Refraction হবে না।যার ফলে সূর্যোদয় ২মিনিট পর ও সূর্যাস্ত ২ মিনিট পর হবে।অর্থ্যাৎ দিনের দৈর্ঘ্য ৪ মিনিট হ্রাস পাবে ।[২] কিন্তু রাত ও দিনের সর্বমোট দৈর্ঘ্য অপরিবর্তিত থাকবে।
Atmospheric Refraction এর ফলে আমরা ভোরের মৃদু আলো আর সন্ধ্যায় গোধূলীর মনোরম দৃশ্য উপভোগ করতে পারি।

[২] নিরক্ষরেখার অবস্থানের ক্ষেত্রে।অন্য অক্ষাংশে অবস্থানের ক্ষেত্রে মান পরিবর্তন হবে।
commented Jun 20, 2015 by **কৌতুহলী** (1,573 points)
edited Jun 21, 2015 by **কৌতুহলী**

আমিও তাই ভেবেছিলাম,আপনার উত্তরে নিশ্চিত হলাম।

সঠিক উত্তরটা দেওয়ার জন্য অনেক ধন্যবাদ ............।

commented Jun 20, 2015 by সপ্নবাজ (471 points)

প্রশ্ন করার জন্য ধন্যবাদ!

আমার আগের উত্তরটির ব্যাখ্যা ভুল ছিল।দিনের দৈর্ঘ্য হ্রাসের কারন আহ্নিক গতির বৃদ্ধি নয়; Atmospheric Refraction।
আগের ভুল ব্যাখ্যার জন্য আমি আন্তরিক ভাবে দুঃখিত। :(

আপনার নাম যে শুধু কৌতুহলী তা কিন্তু নয়।আপনি আসলেই একজন কৌতূহলী মানুষ।আপনার প্রশ্নের মাধ্যমে আমি সহ অন্যরাও অনেক কিছু জানতে পারছি।
আপনার কৌতূহলী প্রশ্ন করা অব্যাহত থাকুক এই কামনা করি।

commented Jun 21, 2015 by **কৌতুহলী** (1,573 points)
Thank U very much ...........
commented Jun 21, 2015 by **কৌতুহলী** (1,573 points)
edited Jun 22, 2015 by **কৌতুহলী**
তার মানে বায়ুমণ্ডল না থাকলে ভোর এবং সন্ধ্যা বলে কিছুই থাকত না; রাত্রিভাগের পরিমাণ বেশি হয়ে যেত।
তাই তো !
commented Jun 21, 2015 by সপ্নবাজ (471 points)
সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত এর সময়কে যথাক্রমে ভোর ও সন্ধ্যা বলা হয় না???

যদি তাই হয়,সূর্যোদয় ও সূর্যাস্ত তো অবশ্যই থাকবে।সেহেতু ভোর আর সন্ধ্যা ও থাকবে।আমি বলেছি ভোরের স্নিগ্ধ আলো আর গোধূলী থাকবে না।বায়ুমন্ডল না থাকালে আমাদের আকাশও এত সুন্দর নীল দেখা যাবে না,কালো দেখা যাবে!
আরেকটু ভাল ভাবে বুঝার জন্য "গৌধূলীর রং লাল কেন?" এর উত্তরটা পড়তে পারেন।এস এস সি বা এইস এস সি এর বইতে পাবেন। :)
commented Jun 21, 2015 by **কৌতুহলী** (1,573 points)
edited Jul 2, 2015 by **কৌতুহলী**

অর্থাৎ বলা যায়, বায়ুমণ্ডলের কারণে সকাল কিছুটা তাড়াতাড়ি হয়, বিপরীতভাবে রাত হয় কিছুটা দেরি করে।  এককথায়, দিবাভাগের  পরিমাণ  রাত্রিভাগের চেয়ে সামান্য(প্রায় 4মিনিট)  বেশি।

             image

Question followers

0 users followed this question.

Related questions

4,676 questions

5,801 answers

1,861 comments

15,955 users

74 Online
0 Member And 74 Guest
Most active Members
this month:
    Gute Mathe-Fragen - Bestes Mathe-Forum
    ...