Welcome to Zero to Infinity Q&A. To ask questions or answer any question please Register first. Thank You.

পৃথিবী যদিও প্রবল বেগে ঘুরছে,কিন্তু আমরা বুঝতে পারি না কেন?

6 like 0 dislike
867 views
asked Sep 12, 2013 in Physics by সাদা কালো মেঘ (107 points)
0% Accept Rate
Share at -

2 Answers

5 like 0 dislike
answered Sep 12, 2013 by Minhaj (182 points)
সহজ ভাষায় যদি বলা হয় তাহলে বলতে হবে, আমরা যদি তুলনা না করি তাহলে কোন কিছুই বুঝতে পারি না। যেমন, ভালো ছাত্র বুঝতে হলে খারাপ ছাত্রও দেখতে হবে আবার, রিকসার যে গতি তা বুঝতে হলে রিকসায় উঠে বসলে হবে না, নিশ্চয় আমরা আশে-পাশের স্থির অথবা ভিন্ন গতি কিছুর সাথে তুলনা করলে বুঝতে পারি তার গতি আছে কিনা!
এজন্যই পৃথিবীপৃ্ষ্ঠে থেকে আমরা বুঝি না, কিন্তু যদি মহাকাশের অন্য বস্তুর সাথে তুলনা করি তাহলে বোঝা যাবে পৃ্তহিবী কতটা গতিতে ঘুরছে!
4 like 1 dislike
answered Sep 12, 2013 by MI Hossain Prince (201 points)
Theory of Relativity এই অংশ টুকু ব্যাখ্যা করে দেয়। আইনস্টাইন যখন প্রথম এই ব্যাপারে বলেন তখন তৎকালীন পৃথিবীর মাত্র ১৮ জন মানুষ তা বুঝতে পেরেছিল। ধরুন আপনি প্লেন এ করে যাচ্ছেন, গতি যদিও অনেক বেশি আপনি সেটা কখনও টের পাবেন না, কারন প্লেনের সাথে আপনিও একই গতিতে চলছেন। কিন্তু যদি কম্পেয়ার করেন অন্য কোনও কিছুর গতির সাথে সেই ক্ষেত্রে বুঝতে পারবেন কতটুকু গতিতে চলছেন অথবা চলছেন না। আমরা পৃথিবীর ভু পৃষ্টে আছি বলে আমরাও তা টের পাই না, কিন্তু পৃথিবীকে যদি অন্য কোনও গ্রহের সাথে কম্পেয়ার করি শুধু তখনি বুঝতে পারি পৃথিবী কতটুকু গতিতে ঘুরছে।

অনেক ধন্যবাদ আপনাকে :)
commented Jan 9, 2018 by সুদর্শন‌ মাহাত (100 points)
"পৃথিবীর ঘূর্ণয়ন আমরা কেন বুঝতে পারিনা।" ................................................. ছোট বেলা থেকেই শুনে আসছি আমাদের পৃথিবীটা ঘুরছে এবং এই ঘূর্ণয়নের বেগটাও কম না।বড় হওয়ার পর জানতে পারলাম বেগটা নিজ অক্ষের উপর ঘন্টায় প্রায় 1670 কিলোমিটার।তার মানে সেকেন্ডে 0.5 কিলোমিটার। এবং পৃথিবী সূর্যের চারদিকে ঘুরে ঘন্টায় 108000 কিলোমিটার (সেকেন্ডে 30 কিলোমিটার) । চিন্তা করেন বেগ গুলো কি ভয়াবহ রকম বেশি!আমরা সাধারনত যেসব বাস বা ট্রেনে চলাফেরা করি তাদের বেগ ঘন্টায় 70-80 কিলোমিটার। এখন আমার কথা হচ্ছে পৃথিবী এত দ্রুত ঘুরা সত্ত্বেও আমরা কেন বুঝতে পারিনা? ছোটবেলা থেকেই আমি এই প্রশ্নের জবাব খুজেছি,কিন্তু সন্তোষজনক কোন উত্তর পাইনি।কয়েকদিন আগে নিজ মনেই নিজের প্রশ্নের জবাব পেয়ে গেলাম। ব্যাপারটা এরকম,আমি বাড়ি যাওয়ার জন্য ট্রেনে উঠে বসে আছি।হঠাৎ দুইটা ট্রেন খুব আস্তে পাশাপাশি চলতেছে,অথচ আমি ট্রেনে বসে মোটেও বুঝতেছিলাম না।এরপর জানালা দিয়ে অপর পাশে তাকালাম,তখন বুঝলাম আসলেই ট্রেন দুইটা গতিশীল।আর এখান থেকেই বুঝলাম পৃথিবীর ঘূর্ণয়ন আমরা কেন বুঝতে পারিনা। যারা ব্যাপারটা বুঝে আমার মনে হয়ে তাদের ধারনাটাও শতভাগ ক্লিয়ার না। প্রথম কারণ: আপনাকে যদি কোন ট্রেন বা বাসের ভেতর ঢুকিয়ে দরজা জানালা সব বন্ধ করে দেওয়া হয় অর্থাৎ বাইরের দৃশ্য দেখতে না দেওয়া হয় তাহলে আপনি কোন ভাবেই বুঝতে পারবেন না যে আপনি আপনার চারপাশে সবকিছুর সাপেক্ষে ঘন্টায় 70-80 কিলোমিটার বেগে গতিশীল। (এক্ষেত্রে ইঞ্জিনের শব্দ ও ঝাঁকুনির কথা বাদ।) পৃথিবীর বেলায়ও ঠিক একই কারণ।পৃথিবী ঘূর্ণয়নের সময় তার গায়ের সবকিছুকে নিয়েই ঘুরে। তাই পৃথিবীর ঘূর্ণয়ন তুলনা করা মত আর কিছু পাওয়া যায় না যেটা পৃথিবীর সাপেক্ষে স্থির,যেমনটা ট্রেনের ভিতর হয়েছিল ।যদি পৃথিবীর কাছাকাছি অন্য কোন স্থির বস্তুু থেকে পৃথিবীকে পর্যবেক্ষণ করা যেত তাহলে পৃথিবীর ঘূর্ণয়ন বোঝা যেত। এখন আমার কথা হচ্ছে চন্দ্র-সূর্য এবং অন্যান্য গ্রহ-নক্ষত্র তো পৃথিবীর বাইরের বস্তুু ,তাদের সাপেক্ষে তো বুঝতে পারার কথা। অনেকেই বলে সবকিছু একসাথে ঘুরতেছে তাই বুঝতে পারিনা।আসলে ব্যাপারটা কিন্তু তা না। কারণ চন্দ্র-সূর্য কি পৃথিবীর সাথে একই বেগে সমকেন্দ্রিক ভাবে ঘুরতেছে? কখনই না।যদি এমনটা হত তাহলে সারা জীবন এদেরকে আমাদের মাথার উপরই দেখতাম। তাহলে তাদের সাপেক্ষে তো বুঝতে পারার কথা। কারণ,দেখেন দুইটা ট্রেন যদি পাশাপাশি দুইটা ভিন্ন বেগে গতিশীল হয় অথবা তাদের ডিরেকশান যদি ভিন্ন হয় তাহলে আমরা কিন্তু বুঝতে পারি তারা পরস্পর গতিশীল। তাহলে আমরা পারিনা কেন? আমাদের বুঝতে না পারার কারন হচ্ছে পৃথিবী থেকে তাদের দূরত্ব।আর এটাই হচ্ছে দ্বিতীয় কারন। ব্যাপারটা বোঝার জন্য আমরা আবার সেই ট্রেনের কাছে যাই। ট্রেনে বসে আপনি যখন জানালার খুব কাছে তাকাবেন তাহলে দেখবেন জানালার পাশের গাছপালা, পশুপাখি গুলো খুব দ্রুত আপনাকে অতিক্রম করছে।একদম চোখের পলকে হারিয়ে যাচ্ছে। অথচ জানালা থেকে কয়েকশ গজ দূরের বস্তুু গুলো কি চোখের পলকে হারিয়ে যাচ্ছে?না। আপনি দূরের একটা বস্তুু অনেক্ষণ যাবত পর্যবেক্ষণ করতে পারবেন।আসলে কারনটা এখানেই। কাছের একটা বস্তুু কে খুব কম সময় আর দূরের বস্তুুকে বেশি সময় ধরে পর্যবেক্ষণ করার কারণটা কি? আপনি যদি শুধু দূরের একটা বস্তুুর দিকে তাকিয়ে ট্রেনে চড়েন তাহলে ট্রেন যতই দ্রুত চলুক না কেন কাছের বস্তুুর তুলনায় আস্তে মনে হবে।যদি আরো দূরের বস্তুুর দিকে তাকান তাহলে আরো আস্তে মনে হবে।আর যদি শুধু চন্দ্র অথবা সূর্যের দিকে তাকিয়ে থাকেন তাহলে আপনি বুঝতেই পারবেন না যে আপনি গতিশীল।

4,676 questions

5,801 answers

1,861 comments

15,955 users

78 Online
0 Member And 78 Guest
Most active Members
this month:
    Gute Mathe-Fragen - Bestes Mathe-Forum
    ...