Welcome to Zero to Infinity Q&A. To ask questions or answer any question please Register first. Thank You.

বৈদ্যুতিক তারে কাক বা পাখি বসলে মারা যায় না কিন্তু বড় বাদুড় বসলে তা মারা যায় কেন?

3 like 0 dislike
892 views
asked Oct 16, 2016 in Physics by শিখতে চাই (138 points)
0% Accept Rate
1 flag
Share at -

2 Answers

1 like 0 dislike
answered Oct 18, 2016 by sajidur (313 points)
edited Oct 18, 2016 by sajidur
মজার প্রশ্ন।
আমরা নিশ্চয়ই জানি যে কারেন্ট চলাচল করা মানে ইলেক্ট্রন চলাচল করা। হাই ভোল্টেজ থেকে লো ভোল্টেজ এরিয়ায় কারেন্ট(ইলেক্ট্রন) যাতায়াত করে। এই জিনিসটি আমরা অধিকাংশ মানুষই জানি এবার আসি পাখির কথায়।
একটা ছোট পাখি যখন হাই ভোল্টেজের তারে বসে তখন কেন শকড খায় না...?
একটা পাখি যখন কারেন্টের তারে এসে বসে তখন সে তারে যতটুকু ভোল্টেজ আছে ততোটুকুই প্রাপ্ত হয় যে কারণে কারেন্টের কোন প্রয়োজন পরে না তার মধ্য দিয়ে অতিবাহিত হওয়ার। কিন্তু এই পাখিটি যদি এবার অন্য কোন তার ধরে কিংবা ঐ তারে বসে থাকা অবস্থায় মাটি স্পর্শ করে তখন সে প্রচুর শকড খাবে। কারণ কারেন্ট তখন তার মধ্য দিয়ে কম ভোল্টেজ এরিয়ায় প্রবেশ করে। আর একটা ছোট পাখির পক্ষে সম্ভব হয় না দুইটি তার স্পর্শ করার কিংবা তারে একটি পা রেখে মাটিতে স্পর্শ করা। (মাটিতে ভোল্টেজ কিন্তু শূন্য)

আর বড় বাআদুর গুলো যখন উড়ে তখন তারা শব্দ তড়ঙ্গ ব্যাবহার করে অনেক সময়েই কাছাকাছি দুটি তারের দূরত্ব বুঝতে পারে না, দুটি তারই তাদের গায়ে লেগে যায় আর শকড খায়।(যদি দুটি তারে ভোল্টেজ ভিন্ন হয় তাহলে তাদের সংযোগ ঘটলে ইলেক্ট্রিসিটি যাতায়াত করবে) আবার বড় বড় পাখি যদি একই তারে খুব বেশি পা ফাক করে বসে তাহলেও তাদের শকড খাওয়ার সম্ভাবনা থাকে কেননা একই তারের সব জায়গায় ভোল্টেজ সমান না। তখন পা দুটি দূরে থাকার কারণে দুটি আলাদা পা দুই রকম ভল্টেজ পাবে আর তার মধ্য দিয়ে কারেন্ট চলাচল করা শুরু করবে।

বুঝার সুবিধার্থে আরো একটা জিনিস মনে করিয়ে দেই...
একটা জিনিস দেখবেন, ইলেক্ট্রেশিয়ানরা কাজ করার সময় প্লাস্টিকের স্যান্ডেল/ বুট পরে নেয় যাতে কারেন্ট তাদের শরীরের মধ্য দিয়ে মাটিতে যেতে না পারে। যেহেতু মাটির ভল্টেজ শূন্য সেহেতু তার থেকে মাটিতে কারেন্ট যাবে।
তাহলে এখন প্রশ্ন জাগতে পারে লাইট পোস্টের উপরে কাজ করার সময় কিভাবে কারেন্টে শকড খায়?
উত্তরঃ তখন তারা আলাদা দুটি তার ধরে ফেলে ভুল করে। :)
0 like 1 dislike
answered Oct 17, 2016 by Jeion Rahman (1,614 points)
আসলে ব্যাপারটা এমন নয় বাদুর, আর কাক উভয়ের শরীরে তড়িৎ প্রবাহের জন্য প্রয়োজনীয় রোধ থাকে। মূলকথা হল circuit পূর্ণ হয়েছে কিনা কাক অথবা বাদুর তারে বসলে ওরা শুধু ধনাত্নক প্রান্ত স্পর্শ করে বসে থাকে এখানে negative প্রান্ত ( আর্থিং) থাক না তাই বিদ্যুৎ প্রবাহিত হয় না কোনো কারণে আর্থিং হয়ে circuit পূর্ণ হলে বিদ্যুৎ প্রবাহিত হবে আর কাক ও বাদুর উভয়েই মারা যাবে।
commented Oct 18, 2016 by Jeion Rahman (1,614 points)
ভুমি হল ইলেকট্রনের অাধার, ভুমি আমরা ইলেক্ট্রনের সাগর বলেও ডাকি।
commented Oct 18, 2016 by Jeion Rahman (1,614 points)
অন্যকে বুঝানোর পূর্বে নিজপর স্বচ্ছ ধারণা অর্জন প্রয়োজন নয় কি???? আশাকরি বুঝতে পেরেছেন। ভুল কিছু বলে ফেললে ক্ষমাপ্রর্থী।
commented Oct 18, 2016 by sajidur (313 points)

"কাক অথবা বাদুর তারে বসলে ওরা শুধু ধনাত্নক প্রান্ত স্পর্শ করে বসে থাকে এখানে negative প্রান্ত ( আর্থিং)"

আমি এই প্রথম শুনলাম কারেন্টের ঐ তার গুলা পজেটিভ। laughকাক আর বাদুর ধনাত্মক আর ঋনাত্মক প্রান্ত চেনে এটাও জানতাম না। angry দুঃখিত ভুল আমারই হয়েছে।

commented Oct 18, 2016 by Jeion Rahman (1,614 points)
আমি তো কোথাও লিখি নি যে বাদুর ওগুলা চিনে তাহলে এধরনের বিদঘুটে কথা বললেন কেন?
commented Oct 18, 2016 by শিখতে চাই (138 points)
দয়া করে আর কোন তর্কে যাবেন না ।

Question followers

1 users followed this question.

Related questions

4,676 questions

5,801 answers

1,861 comments

13,158 users

84 Online
0 Member And 84 Guest
Most active Members
this month:
  1. Mainu - 5 points
  2. MrBigs - 1 points
  3. Ta-Sin Zidan - 1 points
Gute Mathe-Fragen - Bestes Mathe-Forum
...