Welcome to Zero to Infinity Q&A. To ask questions or answer any question please Register first. Thank You.

অরবিট ও অরবিটালের মধ্যে পার্থক্য কোথায়?

7 like 0 dislike
1,985 views
asked Aug 10, 2015 in Chemistry by Toufic Hassan (465 points)
20% Accept Rate

edited Aug 10, 2015 by Toufic Hassan
Share at -

1 Answer

4 like 0 dislike
answered Aug 11, 2015 by Mahmudul (1,024 points)
edited Aug 11, 2015 by Mahmudul
এ সম্পর্কে প্রথমেই কোয়ান্টাম সংখ্যা সম্পর্কে বলি- পরমাণুর ইলেকট্রনের অবস্থান শক্তি স্তরের আকার, আকৃতি, বিন্যাস ইত্যাদি প্রকাশক সংখ্যা সমূহ কোয়ান্টাম সংখ্যা। প্রধান কোয়ান্টাম সংখ্যা হলো যে নির্দিষ্ট কক্ষপথে ইলেকট্রন ঘুরে তা প্রকাশক সংখ্যা। ইলেকট্রন আবর্তনের প্রতিটি প্রধান শক্তিস্তরে আবার কাধিক উপশক্তিস্তর আছে। এদের প্রকাশক সংখ্যাই সহকারী কোয়ান্টাম সংখ্যা। এটির মান 0 হতে n-1 পর্যন্ত হতে পারে, যেখানে n হলো প্রধান শক্তিস্তরের ক্রমিক। এখানে s, p, d, f দ্বারা উপস্তরগুলোকে প্রকাশ করা হয়। তো এই ইলেকট্রন আবর্তনের নির্দিষ্ট যে প্রধান কক্ষপথ রয়েছে তাই অরবিট।

কোয়ান্টাম মেকানিক্স হতে আমরা জানি প্রতিটি কণার সাথেই তরঙ্গ আছে। এ তরঙ্গের ফাংশনের বর্গই প্রোবাবিলিটি ফাংশন। তো ইলেকট্রনের সাথেও অবস্থিত তরঙ্গের ফাংশনের বর্গ দ্বারা ইলেকট্রনের পরমাণুর ভিতরে কোনো স্থানে পাওয়ার সম্ভাবনা জানা যায়। পরমাণুর অভ্যন্তরে নিউক্লিয়াসের বাইরে চারদিকে, যে স্থানে কোনো নির্দিষ্ট শক্তি স্তরের ইলেকট্রন পাওয়ার সম্ভাবনা বেশি তাই অরবিটাল। s-উপস্তরে অবস্থিত তদ্রুপ একটি সম্ভাবনাময় অঞ্চল s-অরবিটাল। কোনো কণার অবস্থান ঠিকমতো জানতে পারলে তার ভরবেগ অনিশ্চিত, ভরবেগ জানলে অবস্থান অনিশ্চিত, এটি হাইজেনবার্গের অনিশ্চয়তা সূত্র। এ সূত্র মতেই কোনো পরমাণুর ভিতর ইলেকট্রনের সঠিক অবস্থান জানা যায় না। এ কারণেই সম্ভাব্যতা দিয়ে ইলেকট্রনের অবস্থান বিচার করা হয়। বিশেষ- কোয়ান্টাম সসংখ্যা ৪ প্রকার। এখানে, বাকি ২ টি আলোচিত হয়নি।

Question followers

0 users followed this question.

4,677 questions

5,802 answers

1,861 comments

16,023 users

116 Online
0 Member And 116 Guest
Most active Members
this month:
  1. Reduan Hossain Riad - 1 points
  2. The Rysul - 1 points
Gute Mathe-Fragen - Bestes Mathe-Forum
...